Home / উপজেলা / দিনাজপুর সদর / গাছভর্তি শুধুই রঙিন গোলাপি লিচু

গাছভর্তি শুধুই রঙিন গোলাপি লিচু

লিচুর রাজ্য দিনাজপুরের লিচুর অন্য এলাকার লিচুর চেয়ে আলাদা…

গোলাপি এই লিচু মুখে দিলেই ঘ্রাণ আর মিষ্টি রসে মন-প্রাণ ভরে যায়।

দেশব্যাপী খ্যাত দিনাজপুরের লিচুতে এখন মেতে উঠেছে পুরো জেলা। চিরিরবন্দরের প্রতিটি বাড়ির বসতভিটায় বা আঙ্গিনায় গাছে গাছে গোলাপি লিচুতে রঙিন হয়ে গেছে পুরো উপজেলা। এলাকাজুড়ে এখন শুধুই গাছভর্তি লিচু।

দিনাজপুরের লিচু সুস্বাদু ও আগাম জাতের হওয়ায় চাহিদা দিন দিন বাড়ছে। প্রতিটি লিচুই গোলাপি রঙের, শাঁস মোটা ও রসে ভরপুর খেতে ভারি মজা গন্ধও অতুলনীয়।

থোকায় থোকায় বাহারি লিচু সবার মন কাড়ছে। সেই সঙ্গে লিচুর মৌ মৌ গন্ধ আর ছোট ছোট পাখিদের কিচির-মিচির শব্দে এলাকা মুখরিত।

এবার সুস্বাদু ফল লিচুর ফলন গত বছরের চেয়ে অনেক কম হয়েছে বলে চাষিরা জানিয়েছেন। বাগান থেকে লিচু তোলার শেষ সময় পর্যন্ত প্রকৃতি অনুকূলে থাকলে লিচু চাষিরা আর্থিকভাবে কিছুটা লাভবান হবেন বলে অনেকে মনে করছেন।

এবারও গাছে মুকুল আসার আগেই ব্যাপারীরা অনেক লিচুগাছ আগাম কিনে নিয়ে গেছেন। চাষিরা আর্থিকভাবে বেশি লাভের আশায় লিচুর গুটি রক্ষার জন্য গাছে নিয়মিত ভিটামিন ওষুধ স্প্রে এবং গাছের গোড়ায় পানি ও সার দিয়ে যাচ্ছেন। এছাড়াও পাকা লিচু রক্ষার জন্য চাষিরা সারা রাত সজাগ থেকে বাগান পাহারা দিচ্ছেন।

দিনাজপুরের চিরিরবন্দর ১০নং পুনট্রি ইউনিয়নের তুলশীপুর গ্রামের লিচু ব্যবসায়ী মো. জাহাঙ্গীর আলম ওরফে বাবু জানান, দিনে বিভিন্ন পাখি ও কিশোর-কিশোরীদের অত্যাচার এবং রাতে বাদুরের উপদ্রব থেকে লিচু রক্ষা করতে দিনরাত তাদের বাগান পাহারা দিতে হচ্ছে। এ বছর লিচুর ফলন কম হলেও লিচুর দানা ও আকার বড় হয়েছে।

লিচুর পাইকারী ও খুচরা বিক্রেতা মো. রহিম ইসলাম জানান, কালবৈশাখী ঝড় ও শিলাবৃষ্টির কারণে এ বছর লিচুর ফলন কম হয়েছে। বর্তমানে পুরোদমে গাছ থেকে লিচু তোলার কাজ ও বিক্রি শুরু হয়েছে। গত বছর ১০০ লিচুর দাম ছিল ১৫০ থেকে ৩০০ টাকা পর্যন্ত। এবার লিচুর দাম কিছুটা বাড়তে পারে।

লিচু চাষিরা জানান, পাইকাররা প্রতি বছর এখান থেকে লিচু কিনে ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেটসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় রফতানি করে থাকে। অন্যান্য এলাকার লিচুর দিনাজপুরের লিচুর স্বাদ আলাদা হওয়ায় দেশের বিভিন্ন এলাকার লোকজন এসে ভিড় জমায় লিচু কেনার জন্য। গাছে মুকুল আসার আগেই গাছের মালিককে অগ্রিম টাকা দিয়ে লিচু গাছ কিনে নিয়ে যায় স্থানীয় ব্যাপারীরা।

Facebook Comments
Share This Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

আনন্দ সাগর, দিনাজপুর

আনন্দ সাগর, দিনাজপুর…. মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতাল এর পাশ্বে অবস্থিত… Facebook Comments